editor

প্রকাশিত: ১:৩০ পূর্বাহ্ণ, নভেম্বর ৩, ২০২০

র্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচন আজ: ট্রাম্প না বাইডেন জটিল সমীকরণ

র্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচন আজ: ট্রাম্প না বাইডেন জটিল সমীকরণ

অনলাইন ডেস্ক

মার্কিন নির্বাচন নিয়ে বাংলাদেশের জনগণের মধ্যে তেমন প্রতিক্রিয়া নেই, তবে কৌতূহল আছে। নীতিনির্ধারক বা সচেতন মহলের চোখ রয়েছে বিশ্বের সবচেয়ে ক্ষমতাধর যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে। মঙ্গলবারের নির্বাচনের ফল কি হতে যাচ্ছে? এটা স্পষ্ট যে যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে সবচেয়ে উত্তেজনাপূর্ণ নির্বাচন হচ্ছে আজ। বিশ্ব মিডিয়ার আগাম রিপোর্ট তারই ইঙ্গিত দিচ্ছে। এবারই প্রথম যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেনশিয়াল নির্বাচন নিয়ে এতোটা অনিশ্চয়তা তৈরি হয়েছে। ফল প্রকাশে বিলম্ব হওয়া ছাড়াও নির্বাচন আদালত পর্যন্ত গড়াতে পারে বলে আশঙ্কা ব্যক্ত করেছেন প্রার্থী এবং তাদের ঘনিষ্ঠরা। জালিয়াতির আগাম অভিযোগ উঠেছে। নির্বাচনের ফল মেনে না নেয়ার হুমকি দিয়েছেন রিপাবলিকান প্রার্থী ডনাল্ড ট্রাম্প।

হোয়াইট হাউস জয়ের যত হিসাব-নিকাশ
যুক্তরাষ্ট্রের ইলিনয় স্টেট ইউনিভার্সিটির রাজনীতি ও সরকার বিভাগের ডিস্টিংগুইশড প্রফেসর ড. আলী রীয়াজের মতে, যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ইলেক্টোরাল কলেজের ৫৩৮ ভোট গুরুত্বপূর্ণ নিয়ামক। দেশের বিভিন্ন অঙ্গরাজ্যে বিজয় নিশ্চিত করার মধ্য দিয়ে একজন প্রার্থীকে কমপক্ষে ২৭০টি ভোট পেতে হয়। পপুলার ভোটের ধারা যাই হোক ডেমোক্রেটিক ও রিপাবলিকান প্রার্থীদ্বয়ের নির্বাচনী কৌশল প্রণয়নে পূর্ণ মনোযোগ থাকে ওই ইলেক্টোরাল ভোট জয়ে।  ২০২০ সালের নির্বাচনও এর ব্যতিক্রম নয় এমন মন্তব্য করে তিনি বলেন, করোনাভাইরাস, অর্থনীতিতে সংকট, পুলিশি নিপীড়নের বিরুদ্ধে ও নাগরিক অধিকার প্রতিষ্ঠার আন্দোলন সত্ত্বেও এখন পর্যন্ত মার্কিন রাজনীতির মানচিত্র পরিবর্তন হওয়ার মতো কোনো ঘটনা নেই। তাছাড়া ক্ষমতাসীন প্রেসিডেন্টের বিরুদ্ধে বিরোধী দলের প্রার্থীও এমন নয় যে, তার ক্যারিশমা ভোটের অঙ্ক সমূলে পাল্টে দিতে পারে। ওই বিশ্লেষকের মতে, ক্ষমতাসীন প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্প ২০১৬ সালে ৩০টি অঙ্গরাজ্য এবং মেইন অঙ্গরাজ্যের একটি ভোট পেয়ে জয়ী হয়েছিলেন। এবার যদি সেটি ধরে রাখতে পারেন তবে তার জয় ঠেকানো অসম্ভব। কিন্তু আগের নির্বাচনে জয় পাওয়া মিশিগান (১৬), উইসকনসিন (১০) ও পেনসিলভানিয়ায় (২০) এবারে তার জয়কে অভূতপূর্ব বলেই বিবেচনা করা হয়। জনমত জরিপ ইঙ্গিত দিচ্ছে, মিশিগান ও উইসকনসিনে ট্রাম্পের বিজয়ের সম্ভাবনা নেই বললেই চলে। সে ক্ষেত্রে ওই অঙ্গরাজ্যদ্বয় বাদ দিলে তার ভোট দাঁড়ায় ২৭৬টি। সে ক্ষেত্রেও হোয়াইট হাউস ধরে রাখতে তার সমস্যা হবে না, যদি তিনি পেনসিলভানিয়া জিততে পারেন। কারণ হিসাব বলছে, ট্রাম্প ফ্লোরিডায় জিতবেন। তার ঘাঁটি বলে পরিচিত অ্যারিজোনায়ও কোনো ধরনের বিপদ ঘটবে না। ওহাইও এবং আইওয়াতে তীব্র প্রতিদ্বন্দ্বিতার ইঙ্গিত রয়েছে তবে চূড়ান্ত বিচারে ট্রাম্প জিতে যাবেন। আলী রীয়াজ মনে করেন পেনসিলভানিয়ায় হেরে গেলেও ২০১৬ সালে যে ৩টি রাজ্য- মিনেসোটা (১০), নেভাদা (৬) ও নিউ হ্যাম্পশায়ারে (৪) ট্রাম্প হেরেছিলেন অল্প ব্যবধানে, এগুলো পুনরুদ্ধার করতে পারলেও তার জয়ের পথে বাধা থাকবে না। এখন পর্যন্ত এসব অঙ্গরাজ্যে তার জয়ের সম্ভাবনা খুবই কম তথাপি যদি তিনি বিজয়ী হন, তবে অনুমান করা যায় তিনি অন্যত্র বড় ধরনের চমক দেখাবেন। বাইডেনের জয় প্রশ্নে আলী রীয়াজ লিখেন- এটা স্পষ্ট যে, মিশিগান ও উইসকনসিনকে বাদ দিয়ে বাইডেনের অগ্রসর হওয়ার পথ অত্যন্ত সীমিত, বলা যেতে পারে অসম্ভব। কেননা, এই দুই অঙ্গরাজ্য জেতার মতো সমর্থন না থাকলে অন্য অঙ্গরাজ্যে তার সমর্থন থাকবে, এমন মনে করার কারণ কম। সে ধরনের দৃশ্যপট হবে অতিমাত্রায় নাটকীয়। হিলারি ক্লিনটন যে অঙ্গরাজ্যগুলোয় জিতেছিলেন, সেই ২০টি অঙ্গরাজ্য ও ওয়াশিংটন ডিসিকে ধরে রেখে বাইডেনের হোয়াইট হাউস জয়ের জন্য দরকার হবে আরো ৩৮টি ভোট। সে ক্ষেত্রে তিনি যদি মিশিগান (১৬), উইসকনসিন (১০) ও পেনসিলভানিয়ায় (২০) জেতেন, তবেই তার বিজয় নিশ্চিত। আর যদি তিনি ফ্লোরিডা (২৯) জিততে পারেন তবে পেনসিলভানিয়ায় হারালেও বিজয় বাধাগ্রস্ত হবে না। তবে এখন পর্যন্ত ফ্লোরিডাতে হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ের ইঙ্গিত দিচ্ছে জরিপগুলো। ওই বিশ্লেষকের মতে, মিশিগান (১৬), উইসকনসিন (১০) ও নর্থ ক্যারোলাইনায় (১৫) জিতেও বাইডেন জয়ী হতে পারেন। যদি ডেমোক্রেট দলের ২০১৬ সালে হিসাব ঠিক থাকে। কিন্তু মিশিগান (১৬) ও উইসকনসিনের (১০) সঙ্গে অ্যারিজোনা (১১) জয়ী হলে অর্থাৎ ২৬৯ ভোট পেলে গ্যাঁড়াকলে পড়ে যাবেন বাইডেন। সে ক্ষেত্রে তৈরি হতে পারে অচলাবস্থা। তবে সেটিও উতরানো সম্ভব যদি মেইন অঙ্গরাজ্য অর্থাৎ ওয়াশিংটন ডিসির চারটি ভোটই বাইডেন নিজের পক্ষে নিতে পারেন। সে ক্ষেত্রে তার ভোট দাঁড়াবে ২৭০ এ। তবে ওই ফল টিকবে কিনা? তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন মায়ামি বিশ্ববিদ্যালয়ের কলেজ অব আর্টস অ্যান্ড সায়েন্সের রাষ্ট্রবিজ্ঞানের দুই অধ্যাপক জোসেফ ই উসিনস্কি ও ক্যাসি ক্লফস্টাড। তারা মনে করেন- মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ভোটাররা যে রায়ই দিক না কেন, নির্বাচনের ফল মূল প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীদ্বয় শেষ পর্যন্ত মানবেন কিনা, তা এখনও বড় প্রশ্ন হয়ে রয়েছে। কারণ প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্প নির্বাচনে জালিয়াতির আশঙ্কা ব্যক্ত করে এরইমধ্যে নির্বাচনের ফল মেনে নেয়ার প্রতিশ্রুতি দিতে অস্বীকার ও চূড়ান্ত ফল সুপ্রিম কোর্টে চ্যালেঞ্জের ঘোষণা দিয়েছেন।  তার ওই মন্তব্য ভোটের মাঠে তো বটেই নির্বাচন পরবর্তী অনিশ্চয়তার ইঙ্গিত দিচ্ছে বলে মনে করেন বিশ্লেষকরা।

Sharing is caring!


সর্বশেষ সংবাদ

সাবেক প্যানেল মেয়র কয়েস লোদী গ্রে ফ তা র

সাবেক প্যানেল মেয়র কয়েস লোদী গ্রে ফ তা র

নিজস্ব প্রতিবেদক সিলেট সিটি কর্পোরেশনের সাবেক প্যানেল মেয়র (১) ও মহানগর বিএনপির সাবেক যুগ্ম আহবায়ক রেজাউল হাসান কয়েস লোদীকে গ্রেফতার

বিটিভি ভবনে ভয়াবহ আগুন, সম্প্রচার বন্ধ

বিটিভি ভবনে ভয়াবহ আগুন, সম্প্রচার বন্ধ

অনলাইন ডেস্ক বাংলাদেশ টেলিভিশন ভবনে অগ্নিসংযোগ করা হয়েছে। সন্ধ্যায় টেলিভিশনের মূল ভবনে দ্বিতীয় দফা অগ্নিসংযোগ করা হয়। আগুন দেয়ার পর

ঢাকা রণক্ষেত্র, সারা দেশে সংঘর্ষ, নিহত ১১

ঢাকা রণক্ষেত্র, সারা দেশে সংঘর্ষ, নিহত ১১

অনলাইন ডেস্ক বৈষম্যবিরোধী ছাত্র আন্দোলনের ডাকে সারা দেশে ‘কমপ্লিট শাটডাউন’ কর্মসূচি চলছে। এ কর্মসূচির অংশ হিসেবে রাজধানীসহ সারা দেশে ছাত্রলীগ,

আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের  উপর হামলায় জেএসডির নিন্দা

আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের উপর হামলায় জেএসডির নিন্দা

সারাদেশে চলমান কোটা সংস্কার নিয়ে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের উপর হামলা ও নিহতদের ঘটনার তীব্র নিন্দা ও ক্ষোভ জানিয়েছে জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল

কোট সংস্কার আন্দোলনে সিলেট ল’ কলেজ ছাত্র কল্যাণ পরিষদের সংহতি প্রকাশ

কোট সংস্কার আন্দোলনে সিলেট ল’ কলেজ ছাত্র কল্যাণ পরিষদের সংহতি প্রকাশ

চলমান কোটা সংস্কার আন্দোলনে সংহতি প্রকাশ করেছেন সিলেট ল’ কলেজ ছাত্র কল্যাণ পরিষদ। ১৮ জুলাই, বৃহস্পতিবার এক বিবৃতিতে সমিতির সভাপতি

শিক্ষার্থী ও পুলিশের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া

শিক্ষার্থী ও পুলিশের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া

অনলাইন ডেস্ক রাজধানীর মেরুল বাড্ডায় ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের সামনে কোটা সংস্কারের দাবিতে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের সঙ্গে পুলিশের ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। এতে

ঢাকার সঙ্গে সারাদেশের যোগাযোগ বন্ধ

ঢাকার সঙ্গে সারাদেশের যোগাযোগ বন্ধ

অনলাইন ডেস্ক শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে ঢাকার সঙ্গে দেশের সব জেলার বাস যোগাযোগ বন্ধ রয়েছে। বৃহস্পতিবার সকাল থেকে রাজধানীর গাবতলী, মহাখালী, সায়েদাবাদ

গভীররাতে শিক্ষার্থীদের মেসে মেসে তল্লাশি

গভীররাতে শিক্ষার্থীদের মেসে মেসে তল্লাশি

অনলাইন ডেস্ক মধ্যরাতে পুরনো ঢাকার বিভিন্ন এলাকায় বসবাসরত জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ শিক্ষার্থীদের মেসে পুলিশ পরিচয়ে তল্লাশি চালানো অভিযোগ পাওয়া গেছে।