fbpx

Daily Sylheter Somoy

সেপ্টেম্বর ৯, ২০২০

শরতে মেঘের ভেলা

শরতে মেঘের ভেলা

কাচের মতো স্বচ্ছ নীল আকাশে গুচ্ছ গুচ্ছ সাদা মেঘের ভেলার ছোটাছুটি, নদীর ধারে কিংবা গ্রামের কোনো প্রান্তে মৃদু সমীরণে দোল খাওয়া শুভ্র কাশফুলের স্নিগ্ধতা, দোলনচাঁপা, বেলি, শিউলি, শাপলা ফুলের অবারিত সৌন্দর্য নিয়ে আসে শরৎ। গ্রীষ্মের কাঠফাটা রোদ আর বর্ষার অঝোর ধারায় শ্রাবণ ঢলের পর শরতের এ মেঘ, এই বৃষ্টি আবার এই রোদের রৌদ্রছায়া খেলায় মুগ্ধ হয়ে আমাদের মন রবিঠাকুরের সুরে সুর মিলিয়ে গেয়ে উঠতে চায়-

‘নীল আকাশে কে ভাসালে সাদা মেঘের ভেলা রে ভাই-
লুকোচুরি খেলা।’

শরতের স্নিগ্ধ জ্যোৎস্নার রাত্রি ভালোলাগায় হƒদয়কে ছুঁয়ে দেয় না এমন মানুষ খুঁজে পাওয়া ভার। হোক না করোনাকাল। শরতের স্নিগ্ধ রূপ যে কাউকে মুগ্ধ করবে। শরৎকালেই সকাল বেলা কুয়াশা পড়া শুরু হয়। সেসঙ্গে কুয়াশার ওপরে যখন সকালের সোনালি রবির আলো এসে পড়ে তখন শিশির বিন্দু মুক্তার দানার মতো উজ্জ্বল হয়ে ওঠে। সে এক আনন্দময় সুখকর স্মৃতি, এক চমৎকার দৃশ্য। দখিনের সমীরণ খুলে শরতের নির্মল স্নিগ্ধ কোমল চাঁদের আলো সবার কণ্ঠকেই সুরময় করে তোলে। শরতের মাঠে মাঠে বর্ষার সবুজ ধানের ওপর সোনালি আলোর ঝলমলানির মুগ্ধতায় নয়ন জুড়িয়ে যায়। শরতের শান্ত বিলের পানিতে যেন আকাশের মেঘ বালিকা নেমে এসেছে। বিলের পানিতে আকাশের মেঘের ভেলা ভেসে বেড়ানোর প্রতিচ্ছবি দেখলে যে কারও মনই আনন্দে নেচে ওঠে। সেসঙ্গে যদি বাতাসে ভেসে আসে শাপলা শালুক ফুল ও অন্য জলজ উদ্ভিদের মৌ মৌ সুবাসিত গন্ধ তখন মন ভালো না হয়ে পারে কী! শরৎ প্রকৃতিতে মুগ্ধ হয়ে মহাকবি কালিদাস শরৎ বর্ণনায় লিখেছেন,

‘প্রিয়তম আমার, ঐ চেয়ে দেখ/
নববধূর ন্যায় সুসজ্জিত শরৎকাল সমাগত’।

‘ঘন নীল আকাশ, গুচ্ছ গুচ্ছ সাদা মেঘ, কাশবন, শিউলির হালকা মৃদুমন্দ সৌরভে শরতের রূপে মুগ্ধ হয় না এমন বাঙালি খুঁজে পাওয়া মুশকিল। শরতের প্রকৃতির রোদ ছায়ার খেলা প্রভাব ফেলে আমাদের মনেও। আমাদেরও তখন ইচ্ছা করে শরৎ সাজে সেজে উঠতে। আর তাই তো শরতে প্রকৃতির এ মন মাতানো সাজ কখনও উঠে আসে আমাদের শাড়ির আঁচলে এক টুকরা নীল আকাশ হয়ে, তো কখনও শরতের কাশবন যেন দোলা দিয়ে যায় কামিজের প্রান্ত ছুঁয়ে।

শরৎ বলতেই আমরা বুঝি নীল-সাদা আর সবুজের ঐক্যতান। তাই এ সময় প্রকৃতির সঙ্গে একাকার হতে মানাবে এ রঙের পোশাকগুলো। আপনার হালকা নীল, সাদা, আকাশি, ধূসর কিংবা সবুজের যে কোনো শেডের পোশাকই শরতের বার্তা বহন করবে। আবার শরৎ বলতেই অনেকে বোঝেন হালকা সবুজ, টিয়া, হলুদ, কমলা রংগুলো। এসব রঙের পোশাকও বেছে নিতে পারেন শরৎ সাজে।

পোশাকের ক্ষেত্রে সিল্ক কিংবা জর্জেট পরার এটাই সবচেয়ে উপযুক্ত সময়। আরামদায়ক হবে লিনেন, ধুপিয়ান, ভয়েল, মসলিন, তাঁতের কাপড়ও। জর্জেট, জয়সিল্ক, সিল্ক কাপড়ের লং কামিজ, গাউন ধাঁচের পোশাক এখনকার উৎসবের জন্য ফ্যাশনেবল এবং আরামদায়ক। স্কার্ট, টপস, কুর্তি বেছে নিতে পারেন ক্যাজুয়াল পোশাক হিসেবে। দৈনন্দিন অফিসে শাড়ি পরতে চাইলে এখন অনায়াসে পরতে পারেন তসর, অ্যান্ডি, তাঁত কিংবা কটন শাড়ি। রাতের দাওয়াতে সিল্ক, কৃত্রিম মসলিন বা কাতান শাড়ি এ আবহাওয়ায় দারুণ লাগবে।

সময় এবং আবহাওয়া পরিবর্তনের সঙ্গে সঙ্গে সাজও বদলে যায়। শরতের এ সময়ে দিনের বেলা গরমে যেমন গাঢ় সাজ মানানসই নয়, তেমনি অন্যদের চোখেও তা দৃষ্টিকটু। তাইতো এ সময়ের সাজে স্নিগ্ধ ভাব থাকা চাই। এ আবহাওয়ায় হালকা মেকআপই ভালো। দিনের বেলায় ফাউন্ডেশন না লাগিয়ে হালকা কোনো ফেস পাউডার লাগিয়ে নিতে পারেন। এতে ত্বক অনেক বেশি মসৃণ ও øিগ্ধ দেখাবে। আর যদি ফাউন্ডেশন ব্যবহার করতেই চান তবে ম্যাট ফাউন্ডেশন ভালো হবে। পোশাকের সঙ্গে মিলিয়ে লাইট-ব্রাউন কালারের আইশ্যাডো লাগিয়ে নিলে অনেক বেশি ন্যাচারাল দেখাবে। দিনের সাজে চোখের নিচের পাতায় আইলাইনার অথবা মাশকারা না লাগানোই ভালো। বরং পোশাকের রং মিলিয়ে বেছে নিতে পারেন রঙিন কাজল। নীল, সবুজ, গোলাপি কাজলের রেখা টেনে নিতে পারেন চোখের কোণে। প্রকৃতির সঙ্গে মিশে একাকার হবে আপনার এ সাজ। দিনের বেলা ব্লাশন না দিয়ে রাতে দিন। পোশাকের সঙ্গে মিলিয়ে কপালে আলতো করে ছুঁয়ে দিন ছোট্ট একটি টিপ। শরৎ সাজে রাতের বেলায় একটু গাঢ় আই মেকআপ করতে পারেন, ভালো লাগবে। সে ক্ষেত্রে চোখটা সাজাতে পারেন মেরুন, কফি, নীল কিংবা সবুজের বিভিন্ন শেডে। এতে চোখের পাতায় সেজে উঠবে শরৎ। তবে প্রকৃতিতে যেহেতু রোদ-বৃষ্টির খেলা তাই এ সময় প্রসাধন হতে হবে পানিরোধক।

শরতে খোলা চুলের সৌন্দর্যই যেন ভিন্ন কিছু। তবে ভালো লাগবে খোঁপা, বেণিতেও। চুল যেভাবেই ইচ্ছা সাজান কিন্তু তাতে গুঁজে দিন শরতের জংলা থেকে যত্নে বেড়ে ওঠা যে কোনো ফুল। চুলের সাজে এ ঋতুতে দোলনচাঁপায় যেমন স্নিগ্ধ দেখাবে তেমনি আস্ত একটা কাশফুল খোঁপায় পেঁচিয়ে নিলেও অসাধারণ লাগবে। শরতের সাজ পোশাকের সঙ্গে বিশেষ করে নীল রঙের পোশাকের সঙ্গে মুক্তার গহনা অনেক বেশি মাধুর্য এনে দেয়। ভালো লাগবে মেটাল, কাচ, মাটি, পুঁতি, বিডসের গহনাতেও।

Sharing is caring!


সর্বশেষ সংবাদ

সিলেট চেম্বারের সংবাদ সম্মেলন সোমবার

সিলেট চেম্বারের সংবাদ সম্মেলন সোমবার

সিলেট চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রির পরিচালনা পরিষদের ২০২২ ও ২০২৩ মেয়াদের দ্বি-বার্ষিক নির্বাচন উপলক্ষে আগামী ২৯ নভেম্বর সোমবার সকাল

খালেদা জিয়ার মুক্তি ও বিদেশে সু-চিকিৎসার দাবিতে মঙ্গলবার সিলেটে বিভাগীয় প্রতিবাদ সমাবেশ

খালেদা জিয়ার মুক্তি ও বিদেশে সু-চিকিৎসার দাবিতে মঙ্গলবার সিলেটে বিভাগীয় প্রতিবাদ সমাবেশ

খালেদা জিয়ার মুক্তি ও বিদেশে সু-চিকিৎসার দাবিতে ৩০ নভেম্বর মঙ্গলবার দুপুর ২টায় রেজিষ্টারী মাঠে বিএনপির সিলেট বিভাগীয় প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত

‘বিপ্লবী গণতান্ত্রিক আন্দোলনের অগ্রসেনানী ছিলেন ডা. এম এ করিম’

‘বিপ্লবী গণতান্ত্রিক আন্দোলনের অগ্রসেনানী ছিলেন ডা. এম এ করিম’

এদেশের সাম্রাজ্যবাদ সামন্তবাদ আমলা মুৎসুদ্দি পুঁজিবিরোধী জাতীয় গণতান্ত্রিক বিপ্লবের আপোসহীন অকুতোভয় দৃঢ়চেতা সাহসী জননেতা জাতীয় গণতান্ত্রিক ফ্রন্টের সভাপতি এবং সাপ্তাহিক

ফেঞ্চুগঞ্জে স্টেডিয়াম ও ক্রীড়া কমপ্লেক্স নির্মাণ হবে : এমপি হাবিব

ফেঞ্চুগঞ্জে স্টেডিয়াম ও ক্রীড়া কমপ্লেক্স নির্মাণ হবে : এমপি হাবিব

সিলেট-৩ আসনের এমপি হাবিবুর রহমান হাবিব বলেছেন, ফেঞ্চুগঞ্জে একটি স্টেডিয়াম ও একটি ক্রীড়া কমপ্লেক্স নির্মাণের জন্য আমি কাজ করে যাচ্ছি।

মদীনাতুল উলুম মুহাম্মদপুর মাদ্রাসার ভিত্তি স্থাপন অনুষ্ঠান সম্পন্ন

মদীনাতুল উলুম মুহাম্মদপুর মাদ্রাসার ভিত্তি স্থাপন অনুষ্ঠান সম্পন্ন

সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলার কলকলিয়া ইউনিয়নের মুহাম্মদপুর গ্রামে মদীনাতুল উলুম মুহাম্মদপুর মাদ্রাসার ভিত্তি স্থাপন অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়েছে। শনিবার (২৭ নভেম্বর) মাদ্রাসার

ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশন সিলেটের মাসিক সাধারণ সভা

ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশন সিলেটের মাসিক সাধারণ সভা

নিজস্ব প্রতিবেদক আজ শনিবার সকালে ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশন সিলেট-এর কার্যকরী কমিটির মাসিক সাধারণ সভা সিলেট ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশন হাসপাতালের সম্মেলন

নূরল আমীন’র ‘ভাটি বাঙলার উচ্ছ্বাস’ কাব্যগ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন

নূরল আমীন’র ‘ভাটি বাঙলার উচ্ছ্বাস’ কাব্যগ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন

অধ্যাপক নূরল আমীন’র ‘ভাটি বাঙলার উচ্ছ্বাস’ কবিতাবই প্রকাশিত হয়েছে। শনিবার সন্ধ্যায় কাকলী শপিং সেন্টারে বুনন প্রকাশনির নিজস্ব অফিসে আমন্ত্রিত অতিথিরা

নিরাপদ সমাজ উন্নয়ন সংস্থার ১৬তম প্রতিষ্টাবার্ষিকী ও পদক প্রদান সম্পন্ন

নিরাপদ সমাজ উন্নয়ন সংস্থার ১৬তম প্রতিষ্টাবার্ষিকী ও পদক প্রদান সম্পন্ন

বালাগঞ্জ-ওসমানীনগরের সামাজিক সংগঠন নিরাপদ সমাজ উন্নয়ন সংস্থা ১৬ বছর পেরিয়ে ১৭ বছরে পদার্পন করেছে। সংগঠনটির ১৬তম প্রতিষ্টাবার্ষিকী উপলক্ষে শনিবার দিনব্যাপী