fbpx

Daily Sylheter Somoy

অক্টোবর ১০, ২০২০

স্তন ক্যান্সার দিবস আজ : বছরে মৃত্যুবরণ করেন ১৭ হাজার নারী

স্তন ক্যান্সার দিবস আজ : বছরে মৃত্যুবরণ করেন ১৭ হাজার নারী

সিলেটের সব উপজেলায় হবে শনাক্তকারণ কেন্দ্র- সিলেট সার্জন

নিজস্ব প্রতিবেদক
নারীদের নীরব ঘাতক বলা হয় স্তন ক্যান্সারকে। ক্যান্সারজনিত মৃত্যুর কারণ হিসেবে সারাবিশ্বে দ্বিতীয় স্থানে এবং নারীদের ক্যান্সারজনিত মৃত্যুর কারণ হিসেবে শীর্ষে আছে এই ক্যান্সার। তবে শুধু নারী নয়, স্তন ক্যান্সারকে পুরুষের জন্যও মরণব্যাধি বা ঘাতকব্যাধি বললেও ভুল বলা হবে না। স্তন ক্যান্সার বিষয়ে সচেতন করা, সময় থাকতে প্রতিরোধ এবং যথাযথ চিকিৎসা গ্রহণের জন্য উদ্বুদ্ধ করার লক্ষ্যে বিশ্বব্যাপী প্রতি বছর অক্টোবর মাসকে স্তন ক্যান্সার সচেতনতা মাস হিসেবে পালন করা হয়। একইভাবে পালন করা হচ্ছে এবছরও। পৃথিবীর ঘাতক ব্যাধিগুলোর মধ্যে স্তন ক্যান্সার বেশি মারাত্মক। ক্যান্সারজনিত মৃত্যুর কারণ হিসেবে ফুসফুসের ক্যান্সারের পরই স্তন ক্যান্সারের অবস্থান। ওয়ার্ল্ড ক্যান্সার রিসার্চ ফান্ড-এর ‘ব্রেস্ট ক্যান্সার স্ট্যাটিসটিকস’ শীর্ষক এক প্রতিবেদনে বলা হয়, ২০১৮ সালে ২ মিলিয়নেরও বেশি স্তন ক্যান্সার রোগী সনাক্ত হয় এবং বিশ্বব্যাপী নারীদের ক্যান্সারের শীর্ষে আছে স্তন ক্যান্সার।
বাংলাদেশে দিন দিন বাড়ছে স্তন ক্যান্সারে আক্রান্ত হওয়ার প্রবণতা। এ ব্যাধির শিকার হয়ে প্রতিবছর প্রাণ হারাচ্ছেন হাজারো নারী। সাধারণত চিকিৎসকের কাছে যেতে অনীহা, নিজের ও পরিবারের অবহেলার কারণেই এর প্রবণতা বৃদ্ধি পেয়েছে। বাংলাদেশে প্রতিবছর প্রায় ২২ হাজার নারী নতুন করে স্তন ক্যান্সারে আক্রান্ত হন। আর এ মরণব্যাধিতে আক্রান্ত হয়ে প্রতিবছর মৃত্যু বরণ করেন অন্তত ১৭ হাজার নারী। এছাড়া বিশ্বে প্রতি ৮ জনের মধ্যে গড়ে একজন নারী জীবনের কোনো না কোনো সময় এ ক্যান্সারে আক্রান্ত হন।
চিকিৎসকরা বলছেন, ৯০ শতাংশ ক্ষেত্রেই সচেতনতা ও সময়মতো চিকিৎসা বাঁচিয়ে তুলতে পারে রোগীকে এবং দিতে পারে সুস্থ-স্বাভাবিক জীবন। এমন প্রেক্ষাপটে আজ বুধবার সারাদেশে পালন করা হচ্ছে স্তন ক্যান্সার সচেতনতা দিবস। দিবসটি উপলক্ষে নানা কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে।
বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার তথ্য অনুযায়ী, প্রতিবছর বিশ্বজুড়ে ১৫ লক্ষাধিক নারী স্তন ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে থাকেন এবং প্রতি লাখে ১৫ জন মারা যান। বাংলাদেশে প্রাতিষ্ঠানিকভাবে (ক্যান্সার রেজিস্ট্রি) স্তন ক্যান্সারে আক্রান্ত নারীর সংখ্যা রেকর্ড করা হয় না। তবে স্তন ক্যান্সার চিকিৎসা এবং এ বিষয়ে সচেতনতার কাজে সম্পৃক্ত চিকিৎসকরা বলছেন, প্রতিবছর প্রায় ১৮ হাজার নারী নতুন করে স্তন ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে থাকেন। আর মৃত্যুমুখে পতিত হচ্ছেন ৮ হাজারের বেশি নারী। নারীরা অতিরিক্ত ঝুঁকিতে থাকলেও, পুরুষরাও স্তন ক্যান্সারের ঝুঁকিমুক্ত নন।
বয়স বেশি হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে নারীদের ক্ষেত্রে এ রোগের ঝুঁকি বাড়তে থাকে। বিশ্বায়নের প্রভাবে জীবনযাত্রা ও খাদ্যাভ্যাসের পরিবর্তনও এ রোগের জন্য অনেকটা দায়ী। দেশে অধিকাংশ নারী স্তন ক্যান্সার সম্পর্কে সচেতনতার অভাব, সামাজিক ও ধর্মীয় কারণে শেষ পর্যায়ে (চতুর্থ পর্যায়) ডাক্তারের শরণাপন্ন হয়ে থাকেন। যখন রোগীকে আর কোনোভাবেই বাঁচানো সম্ভব হয় না।
আইএআরসি (ইন্টারন্যাশনাল এজেন্সি ফর রিসার্চ অন ক্যান্সার) গ্লোবোক্যান, ২০০৮-এর তথ্য অনুযায়ী প্রতি বছর নতুন করে ১.৩৮ মিলিয়ন নারী এই ক্যান্সারে আক্রান্ত হচ্ছে এবং ৪,৫৮,০০০ জন রোগী মারা যাচ্ছে। এই রোগে মারা যাওয়ার হার আমাদের দেশের মতো মধ্যম আয়ের এবং নিম্ন আয়ের দেশগুলোতেই অনেক বেশি, যা বিগত কয়েক বছরে বেড়ে গেছে অনেক গুণ। কারণ এসব দেশে স্তন ক্যান্সারে আক্রান্ত অধিকাংশ নারীই প্রাথমিক পর্যায়ে রোগ সনাক্ত করার বিষয়ে সচেতন থাকে না এবং সনাক্ত করার পর উপযুক্ত চিকিৎসা নিতে পারে না। এখনও কেন যেন এই রোগটাকে অনেকে গোপন রোগ হিসেবে দেখেন এবং এখানে এটি একটি সামাজিক ট্যাবুর রূপ নিয়েছে। এমনকি বিষয়টা নিয়ে আলোচনা করতেও আগ্রহী নন অনেকে।
স্তন ক্যান্সার হওয়ার প্রকৃত কারণ এখনও জানা যায়নি। তবে প্রাথমিক অবস্থায় ক্যান্সার সনাক্ত করতে পারলে, যথাযথ ডায়াগনোসিস ও চিকিৎসার মাধ্যমে এর হাত থেকে বাঁচার খুব ভালো একটা সম্ভাবনা থাকে। কিন্তু ক্যান্সার সনাক্ত করতে দেরি হয়ে গেলে, তখন মৃত্যুর প্রহর গোনা ছাড়া আর কিছুই করার থাকে না। আমাদের দেশেও আক্রান্ত রোগীদের অধিকাংশেরই সচেতনতার অভাবে একেবারে শেষ পর্যায়ে গিয়ে ধরা পড়ছে। যখন প্রাণঘাতী এই ক্যান্সারের সাথে লড়াই করবার সাহস বা ইচ্ছাশক্তি কোনোটাই অবশিষ্ট থাকে না।
স্তন ক্যান্সারকে নারীদের নীরব ঘাতক বলা হলেও নারী-পুরুষ উভইয়েরই হতে পারে এই রোগ। তবে নারীদের এ রোগে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকিই সবচেয়ে বেশি। নারীদের বয়স বাড়ার সাথে সাথে স্তন ক্যান্সারের ঝুঁকিও বাড়তে থাকে। সাধারণত চল্লিশোর্ধ নারীদের ক্ষেত্রে স্তন ক্যান্সারে আক্রান্ত হওয়ার প্রবণতাও অনেক বেড়ে যায়। পুরুষদের ক্ষেত্রে এই ক্যান্সার হওয়ার প্রবণতা কম বলে, একেবারে নিশ্চিন্তে থাকার কোন অবকাশ নেই। কিন্তু আমাদের দেশের অধিকাংশ মানুষ জানেনই না যে, পুরুষদেরও স্তন ক্যান্সার হতে পারে। পুরুষরা স্তন ক্যান্সারে আক্রান্ত হতে পারে, এমন আশংকা থেকে অ্যামেরিকান ক্যান্সার সোসাইটি চলতি বছরে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে ২,৬৭০টি নতুন কেস নিয়ে গবেষণা করবে এবং তারা আশংকা করছে যে, আনুমানিক ৫০০ জন পুরুষ এই রোগে মারা যেতে পারে।
স্তন ক্যান্সার নিয়ে সচেতন করার জন্যই প্রতি বছর পুরো বিশ্বব্যাপী অক্টোবর মাসকে স্তন ক্যান্সার সচেতনতার মাস হিসেবে উদযাপন করা হয়। প্রতি ৬ মিনিটে একজন নারী যে রোগে আক্রান্ত হচ্ছে এবং যার অর্ধেকই মারা যাচ্ছে, সেই রোগটাকে কোনো বিবেচনায় লজ্জার কিংবা গোপন রোগ ভাবার কোন সুযোগ নেই। এটা জীবনের প্রশ্ন। এই রোগ প্রতিরোধে নারীদের মধ্যেই সচেতনতা সবচেয়ে জরুরি। তবে নারী-পুরুষ সকলের সচেতনতাই পারে প্রাণঘাতী এই ক্যান্সারকে প্রতিরোধ করতে। অপ্রয়োজনীয় নীরবতা ভেঙ্গে সচেতনতা গড়ে তুলতে হবে। স্তন ক্যান্সার বিষয়ে সচেতনতা গড়ে তুলতে বিশ্বব্যাপী অনেক প্রতিষ্ঠানই কাজ করছে। আমাদের দেশে এই কাজটা করছে টেলিনর গ্রুপের হেলথ সাবসিডিয়ারি টেলিনর হেলথ। স্তন ক্যান্সার সচেতনতার মাস উপলক্ষ্যে অক্টোবর জুড়ে বিভিন্ন স্কুল ও কলেজ ক্যাম্পাসের বাইরে অপেক্ষমান মায়েদের কাছে সচেতনতামূলক লিফলেট বিতরণের মাধ্যমে স্তন ক্যান্সার বিষয়ে সচেতনতা তৈরি করছে। ‘দ্রুত সনাক্তকরণ, বাঁচাবে জীবন’ শিরোনামে স্তন ক্যান্সার সচেতনতামূলক ক্যাম্পেইন পরিচালনা করে। এছাড়া বিশেষজ্ঞ ডাক্তারদের সাথে নিয়ে এ বিষয়ে সেমিনার আয়োজন করে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ও সরাসরি প্রচারণার মাধ্যমে প্রায় ৫০ হাজার মানুষের মাঝে টেলিনর হেলথ সচেতনতা তৈরি করতে সক্ষম হয়। নারীদেরকে এই নীরব ঘাতকের হাত থেকে রক্ষা করতে সচেতনতা তৈরির বিকল্প নেই। এটা একটি প্রাণঘাতী রোগের হাত থেকে বাঁচার লড়াই। আর এই লড়াইয়ে নারী-পুরুষ সকলেরই সামিল হওয়া আবশ্যক। এই রোগে নারীরাই বেশি আক্রান্ত হয় বলে, এটা তাদের একার লড়াই নয়। বরং সকলের সম্মিলিত প্রচেষ্টায় সকলের মাঝে সচেতনতা তৈরির মধ্যেই এই লড়াইয়ের সাফল্য নিহিত।
এই বিষয়ে নিয়ে সিলেটে কোন ধরনের সচেতনতামূলক সেমিনার আয়োজন হয় না বলে চলে। সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে আলাদা স্তন ক্যান্সার বিভাগ থাকলেও নেই বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক। এই বিষয়ে সিলেটের সিভিল সার্জন ডা. প্রেমানন্দ মন্ডল বলেন, সিলেটের ২টি উপজেলায় সচেতনতা ও সনাক্তকারণ কার্যক্রম শুরু হয়েছে। পর্যাক্রমে সবগুলো উপজেলায় আলাদা সনাক্তকারণ কেন্দ্র স্থাপন করা হবে। তিনি বলেন, এই রোগের জন্য সবচেয়ে আগে সচেতনতা প্রয়োজন। অবৈধ মেলামেশা, ভেজা-কাপড় পরিধানে এই রোগ হতে পারে। তাই আমাদের সবার আগে সচেতনতা প্রয়োজন।

Sharing is caring!


সর্বশেষ সংবাদ

সিলেট চেম্বারের সংবাদ সম্মেলন সোমবার

সিলেট চেম্বারের সংবাদ সম্মেলন সোমবার

সিলেট চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রির পরিচালনা পরিষদের ২০২২ ও ২০২৩ মেয়াদের দ্বি-বার্ষিক নির্বাচন উপলক্ষে আগামী ২৯ নভেম্বর সোমবার সকাল

খালেদা জিয়ার মুক্তি ও বিদেশে সু-চিকিৎসার দাবিতে মঙ্গলবার সিলেটে বিভাগীয় প্রতিবাদ সমাবেশ

খালেদা জিয়ার মুক্তি ও বিদেশে সু-চিকিৎসার দাবিতে মঙ্গলবার সিলেটে বিভাগীয় প্রতিবাদ সমাবেশ

খালেদা জিয়ার মুক্তি ও বিদেশে সু-চিকিৎসার দাবিতে ৩০ নভেম্বর মঙ্গলবার দুপুর ২টায় রেজিষ্টারী মাঠে বিএনপির সিলেট বিভাগীয় প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত

‘বিপ্লবী গণতান্ত্রিক আন্দোলনের অগ্রসেনানী ছিলেন ডা. এম এ করিম’

‘বিপ্লবী গণতান্ত্রিক আন্দোলনের অগ্রসেনানী ছিলেন ডা. এম এ করিম’

এদেশের সাম্রাজ্যবাদ সামন্তবাদ আমলা মুৎসুদ্দি পুঁজিবিরোধী জাতীয় গণতান্ত্রিক বিপ্লবের আপোসহীন অকুতোভয় দৃঢ়চেতা সাহসী জননেতা জাতীয় গণতান্ত্রিক ফ্রন্টের সভাপতি এবং সাপ্তাহিক

ফেঞ্চুগঞ্জে স্টেডিয়াম ও ক্রীড়া কমপ্লেক্স নির্মাণ হবে : এমপি হাবিব

ফেঞ্চুগঞ্জে স্টেডিয়াম ও ক্রীড়া কমপ্লেক্স নির্মাণ হবে : এমপি হাবিব

সিলেট-৩ আসনের এমপি হাবিবুর রহমান হাবিব বলেছেন, ফেঞ্চুগঞ্জে একটি স্টেডিয়াম ও একটি ক্রীড়া কমপ্লেক্স নির্মাণের জন্য আমি কাজ করে যাচ্ছি।

মদীনাতুল উলুম মুহাম্মদপুর মাদ্রাসার ভিত্তি স্থাপন অনুষ্ঠান সম্পন্ন

মদীনাতুল উলুম মুহাম্মদপুর মাদ্রাসার ভিত্তি স্থাপন অনুষ্ঠান সম্পন্ন

সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলার কলকলিয়া ইউনিয়নের মুহাম্মদপুর গ্রামে মদীনাতুল উলুম মুহাম্মদপুর মাদ্রাসার ভিত্তি স্থাপন অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়েছে। শনিবার (২৭ নভেম্বর) মাদ্রাসার

ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশন সিলেটের মাসিক সাধারণ সভা

ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশন সিলেটের মাসিক সাধারণ সভা

নিজস্ব প্রতিবেদক আজ শনিবার সকালে ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশন সিলেট-এর কার্যকরী কমিটির মাসিক সাধারণ সভা সিলেট ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশন হাসপাতালের সম্মেলন

নূরল আমীন’র ‘ভাটি বাঙলার উচ্ছ্বাস’ কাব্যগ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন

নূরল আমীন’র ‘ভাটি বাঙলার উচ্ছ্বাস’ কাব্যগ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন

অধ্যাপক নূরল আমীন’র ‘ভাটি বাঙলার উচ্ছ্বাস’ কবিতাবই প্রকাশিত হয়েছে। শনিবার সন্ধ্যায় কাকলী শপিং সেন্টারে বুনন প্রকাশনির নিজস্ব অফিসে আমন্ত্রিত অতিথিরা

নিরাপদ সমাজ উন্নয়ন সংস্থার ১৬তম প্রতিষ্টাবার্ষিকী ও পদক প্রদান সম্পন্ন

নিরাপদ সমাজ উন্নয়ন সংস্থার ১৬তম প্রতিষ্টাবার্ষিকী ও পদক প্রদান সম্পন্ন

বালাগঞ্জ-ওসমানীনগরের সামাজিক সংগঠন নিরাপদ সমাজ উন্নয়ন সংস্থা ১৬ বছর পেরিয়ে ১৭ বছরে পদার্পন করেছে। সংগঠনটির ১৬তম প্রতিষ্টাবার্ষিকী উপলক্ষে শনিবার দিনব্যাপী